ঘরের মাঠে পয়েন্ট হারাল রিয়াল

স্পোর্টস ডেস্ক : ম্যাচের তখন আর পাঁচ মিনিট বাকি। রিয়ালের সমর্থকরা হয়তো বিজয় নিয়ে বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন; তবে বাস্তববাদী যারা, তারা শেষ বাঁশি না বাজা পর্যন্ত স্বস্তি পাচ্ছিলেন না। যা ভাবার, তাই হলো। ৮৫ মিনিটের সময়ই রিয়ালের সর্বনাশটা করে দিলেন আন্তোনিও গ্রিজম্যান। স্বাগতিকদের জালে দিলেন বল জড়িয়ে। শেষ পর্যন্ত রিয়াল মাদ্রিদ আর অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ডার্বি ম্যাচটা থেকে গেলো ১-১ ড্রতে নিষ্ফলা। পয়েন্ট ভাগাভাগি করে নিতে হলো মাদ্রিদের দুটি দলকেই। এই ড্রতে শীর্ষস্থান হারানোর সমূহ সম্ভাবনা রিয়াল মাদ্রিদের। কারণ, আর কিছুক্ষণ পরেই মালাগার মাঠে গিয়ে খেলতে নামবে বার্সেলোনা। এই ম্যাচে বার্সা যদিজিতে যেতে পারে, তাহলে রিয়ালের সঙ্গে পয়েন্ট হয়ে যাবে সমান। গোল গড়ে এগিয়ে থাকবে বার্সাই এবং তারা উঠে যাবে শীর্ষে। যদিও একটি ম্যাচ হাতে থাকবে রিয়ালের। এ মুহূর্তে ৩০ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৭২, বার্সার পয়েন্ট ৬৯।
আন্তোনিও লামেলাকে স্মরণ করে শুরু হয় রিয়াল-অ্যাটলেটিকোর মধ্যে জমজমাট ডার্বি ম্যাচটি। শুক্রবার স্টকহোমে বোমা হামলায় নিহত হয়েছিলেন লামেলা। তার স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। রিয়াল মাদ্রিদের ফুটবলাররা কালো ব্যাজ ধারণ করেন। তবে ম্যাচ শুরুর পর কোনো দলই বলার মত কোনো আক্রমণ সাজাতে পারেনি। ২৮ মিনিটে গিয়ে একটি ভালো আক্রমণ করে রিয়াল। বেনজেমা-রোনালদো ওয়ান টু ওয়ান বল নিয়ে এগিয়ে এসে গোলমুখে শট নেন রোনালদো। তার শটটি থামিয়ে দেন গোলরক্ষক জ্যান ও’ব্ল্যাক। প্রথমার্ধ এভাবেই কেটে গেলো। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে গিয়ে গোলের তালা খোলে রিয়াল। সাউল নিগুয়েজ হাত দিয়ে বল রেফারি ফ্রি কিকের বাঁশি বাজান। কিক নেন টনি ক্রুস। সেই কিকে ভেসে আসা বলে হেড করে অ্যাটলেটিকোর জালে বল জড়ান পেপে। ১-০ গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। পিছিয়ে পড়ে আক্রমণে ওঠে অ্যাটলেটিকো। রিয়াল মাদ্রিদও চেষ্টা অব্যাহত রাখে ব্যবধান বাড়ানোর; কিন্তু রোনালদোদের অসংখ্য চেষ্টা ব্যর্থতায় পর্যবসিত হলো। শেষ পর্যন্ত খেলার ৮৫তম মিনিটে অ্যাঞ্জেল কোরিয়ার থ্রু থেকে বল পেয়ে রিয়ালের ডিফেন্ডারদের কাটিয়ে মাটি কামড়ানো শট নেন আন্তোনিও গ্রিজম্যান। তাতেই জয়ের স্বপ্ন শেষ হয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদের। দিয়েগো ফোরলানের পর দ্বিতীয় অ্যাটলেটিকো ফুটবলার হিসেবে বার্নাব্যুতে টানা দুই লিগ ম্যাচে গোল করলেন গ্রিজম্যান।

Leave a Reply