চরভদ্রাসনে বিদ্যুতের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও স্বারকলিপি প্রদান

ভয়েস রিপোর্ট ঃ
ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে বিদ্যুতের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে চরভদ্রাসনের সর্বস্তরের জনগণ এবং বিদ্যুৎ প্রদানের দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কে দেওয়া হয়েছে স্মারকলিপি। আজ রবিবার বেলা ১০টার দিকে চরভদ্রাসন উপজেলা সদরে এ কর্মসূচি পালন করে এলাকাবাসী।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল হতেই চরভদ্রাসন পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সর্বস্তরের জনগণ এসে সমবেত হতে থাকে। পরে বাজারের ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে বিক্ষোভ ওই মাঠে সমবেত হয়। এরপর বের করা হয় একটি বিক্ষাভ মিছিল ।
মিছিলটি বাজারের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে উপজেলা পরিষদের সামনে খোলা মঞ্চের নিকট এসে শেষ হয়। পরে সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মো. মোতালেব মোল্লার সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বাজারের ব্যাবসায়ী জাহিদুল ইসলাম, মারজুক জুয়েল, মোহাম্মদ মোল্লা, প্রমুখ।
বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, বর্তমানে চরভদ্রাসনে বিদ্যুতের সীমাহীন লোডশেডিং চলছে। দিন রাত মিলিয়ে  ২৪ ঘন্টার মধ্যে গড়ে দুই ঘন্টাও বিদ্যুৎ থাকে না। ফলে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া ব্যাহত হচ্ছে। ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে কৃষি,শিল্প ও ব্যাবসা বানিয্যের পাশাপাশি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জন জীবন। প্রচন্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছে শিশু ও বৃদ্ধ বয়সীরা।
বক্তারা বলেন, এর ফলে সর্বস্তরের মানুষকে সীমাহীন দুর্ভোগের মুখে পড়তে হয়েছে। মানুষ কোন কাজই নির্বিঘেœ করতে পারছে না। বিকল হয়ে যাচ্ছে টিভি, ফ্রিজসহ ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী।
বক্তারা আগামী তিন দিনের মধ্যে উপজেলায় চলমান লোডসেডিং-এর  মাত্রা কমিয়ে সহনীয় পর্যায়ে নামিয়ে নিয়ে আসার দাবি জানিয়ে বলেন, তা না হলে আগামীতে আরও কঠোর কর্মসূচী গ্রহণ করা হবে।
এ সময় উপস্থিত চরভদ্রাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাম প্রসাদ ভক্ত সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের সাথে লোডশেডিং সহনশীল রাখার বিষয়ে আলাপ করার অশ্বাস দিয়ে বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করেন।
পরে বিক্ষাভকারীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সগীর হোসেনের বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করে। নির্বাহী কর্মকর্তার পক্ষে স্মারকলিপিটি গ্রহণ করেন তার উপজেলা সচিব বিদ্যাধর মন্ডল।
ফরিদপুর পল্লি বিদ্যুতের জিএম রাম শংকর রায় জানান, ফরিদপুওে বর্তাম বিদ্যুতের চাহিদা ১৪০ মেগাওয়াট। কিন্তু বিদ্যুৎ সরবকরাহ পাওয়া পাচ্ছে ৬০ মেগাওয়াট। এ কারনে লোডশেডিং একটু বেশি হচ্ছে। আশা করা যায় রমজান মাস শুরু হওয়ার আগে এ পরিস্থিতির উন্নতি হবে

Leave a Reply