ফরিদপুরের কমলাপুরে শত্রুতা করে বিষ দিয়ে পুকুরের ২০ লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার ঃ
ফরিদপুরে শত্রুতা করে পুকুরে চাষ করা আনুমানিক ২০ লাখ টাকা মূল্যের মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ ঘটনাটি ঘটেছে শহরের কমলাপুর বটতলা এলাকার শতবর্ষের পুরনো একটি পুকুরে। এ ব্যাপারে ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।
তিন বছর আগে ওই পুকুর ইজারা নিয়ে চিতল, রুই, কাতল, গ্রাসকাপসহ বিভিন্ন জাতের দেশী ও বিদেশী মাছের চাষ করেছিলেন কমলাপুর বটতলা এলাকার বাসিন্দা শৈলী নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা মো. আশিকুর রহমান আশিক । পুকুরটি রাত দিন পাহারর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এ মাছ চাষে তাঁর এ পর্যন্ত ১০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। বুধবার (১০মে) ভোর থেকেই ওই পুকুরের মাছ মরে ভেসে উঠতে শুরু করে। বিভিন্ন প্রজাতির মাছগুলি প্রায় চার থেকে আট কেজি আকারের হয়ে উঠেছিল।

পুকুরের সব মাছই  বুধবার ভোর থেকে মরে উঠতে শুরু করে।
মো. আশিকুর রহমান আশিক জানান, পাঁচ বছর আগে তাঁর বাবার মৃত্যু হয়। তিনি ৩ বছর আগে ওই পুকুরে এ মাছ চাষ করেন। এক সপ্তাহ আগে তিনি জাল দিয়ে পরীক্ষা করে দেখেন মাছগুলি বিক্রির উপযুক্ত হয়েছে। আগামী দুই/তিন দিনের মধ্যে মাছগুলি বিক্রি করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তিনি জানান, তার প্রত্যাশা ছিল এ মাছ বিক্রি করে তিনি তাঁর মা-কে এ বছর মক্কায় হজ্ব করতে পাঠাবেন।
আশিকুর রহমান আশিক অভিযোগ করে বলেন, এলাকার কয়েকজন প্রতিবেশী প্রায়ই গোপনে পুকুর থেকে মাছ চুরি করছিল। গত সোমবার ওই প্রতিবেশীরা এ পুকুরের পাহারার দায়িত্বে নিয়োজিত জামাল জেলেকে হুমকিও দেয়। তিনি বলেন, তার ধারনা প্রতিবেশী ওই ব্যাক্তিরা আমার মাছ বিক্রির আগে পুকুরে বিষ দিয়ে সব মাছ মেরে ফেলেছে। এর ফলে তাঁর ২০ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুর কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রেজাউল হক জানান, আমি সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পুকুরের বড় বড় মাছ মরে ভেসে ওঠার ঘটনা ঘটেছে। বিষ প্রয়োগেই মাছগুলি মারা গিয়েছে না অন্য কোন কারনে ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply