ফরিদপুরে ২০ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যোগে ধর্ষকদের বিরুদ্ধে শপথ

মাহবুব পিয়াল,ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ ॥ দেশের বিভিন্ন স্থানে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ধর্ষণ এবং নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে হুশিয়ারী উচ্চারণ করে রাজপথে শপথ নিয়েছে ফরিদপুরের সকল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা।
আজ ৭ অক্টোবর বুধবার সকাল ১০টার দিকে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনে মুজিব সড়কে তাদেরকে যৌন নিপীড়ন বিরোধী শপথ বাক্য পাঠ করান বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্টের জেলা সমন্বয়কারী এ্যাডভোকেট শিপ্রা গোস্বামী।
নারী ও শিশু নির্যাতন এবং ধর্ষণের মত নিকৃষ্ট কর্ম থেকে সর্বদা বিরত থাকিব। সকল বয়সের নারী ও পুরুষের প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করিব। যে কোন ধরনের অনৈতিক কর্মকান্ড দেখলে নিঃসংকোচে বীরদর্পে প্রতিবাদ করিব। দেশের আইনের প্রতি সর্বদা সম্মান প্রদর্শন করিব বলে শপথ নেন তারা।
এ শপথ বাক্য পাঠে অংশ নেন ২০টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের অন্তত দুই শতাধিক নেতা কর্মী।
মানবন্ধন কর্মসূচীতে অংশ নেয় নন্দিতা সুরক্ষা, চল পাল্টাই ,৬৪ ডি ইনিসিয়েটিভস, স্বেচ্ছাসেবী বন্ধু মহল, বিডি ক্লিন ফরিদপুর, মানুষ মানুষের জন্য, মানবতার কল্যানে ফরিদপুর, উৎসর্গ পরিবার, অনুপ্রয়াস, উদ্যম, কেয়া স্টুডেন্ট ফোরাম বাংলাদেশ, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, বাংলাদেশ ইয়াংস্টার সোশ্যাল অর্গানাইজেশন, তরুছায়া, কিং কারাতে বাংলাদেশ, রেডিও ফরিদপুর, প্রচেষ্টা, একতা ফাউন্ডেশন, উইথ শি ও উৎস ফরিদপুর এর সদস্যরা।
বক্তব্য রাখেন নন্দিতা সুরক্ষার তাহিয়্যাতুল জান্নাত, চল পাল্টাইয়ের সোহানুর রহমান সোহান, অনুপ্রয়াসের আবিদ শরীফ, ৬৪ ডি ইনিসিয়েটিভসের আরমান হোসেন প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, ধর্ষণ সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। এই মুহূর্তে দেশে কেউ নিরাপদ নয়। তারা বলেন, ধর্ষকদের কোন দলের অভাব হয় না, কারন তারা কোনো না কোনো দলের ছত্রছায়ায় একই কাজ বারবার করে পার পেয়ে যাচ্ছেন। রাজনৈতিক পরিচয় হিসাবে নয়, একজন ধর্ষক হিসাবে শাস্তি দিলে সমাধান হবে।
একই দাবিতে বেলা ১১টার দিকে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কমর্সূচি পালন করে ইয়াং স্টার নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান।
এদিকে ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে নারী ও শিশু ধর্ষণ বন্ধ ও ন্যায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে শিক্ষর্থীরা। বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলা পরিষদের সামনে শতাধিক শিক্ষার্থী ও স্থানীয় জনগণ এতে অংশ নেয়।
মানববন্ধন চলাকলীন সময়ে তারা শ্লোগান দিতে থাকে “ধর্ষিতার কান্না আর না আর না, আমার সোনার বাংলায় ধর্ষিতার ঠাই নাই।”
এ সময় চরভদ্রাসন সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা সরকারী সারদা সুন্দরী কলেজের এইচ এস সি পরীক্ষার্থী সামিয়া হক (১৮) সাম্প্রতিক সময়ে নারী ও শিশু ধর্ষণের সাথে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় এন দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করেন।
সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা সরকারী রাজেন্দ্র কলেজের অর্থনিতি বিভাগের ছাত্র নাঈম বাসার (২০) জানান জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করেছে চরভদ্রাসনের সর্বস্তরের শিক্ষাথীরা।
এদিকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সামনে একই দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ইমাম ওলেমা কওমী জোট।

Leave a Reply