শিক্ষায় দেশ সেরা জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া ॥ ভয়েস অব ফরিদপুর

ভয়েস অব ফরিদপুর রির্পোট ॥

জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০১৭ এ শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন ফদিপুরের জেলা প্রশাসক বেগম উম্মে সালমা তানজিয়া। শিক্ষা অধিদপ্তরের এক পত্রের মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

‘সুশাসনে গড়ি সোনার বাংলা’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসনকে জনবান্ধব করার প্রত্যয়ে গত বছর ১৫ সেপ্টেম্বর ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক হিসেবে উম্মে সালমা তানজিয়া তার কর্মস্থলে যোগ দেন।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) মো. সাবের হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

ওই চিঠিতে জানানো হয়, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৭ এর শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়াকে দেশ সেরা জেলা প্রশাসক (শিক্ষা পদক) নির্বাচন করা হয়েছে।

আগামী ৬ মার্চ ঢাকার ওসমানী মিলনায়তনে রাষ্ট্রপতির নিকট হতে পুরস্কার গ্রহণ করবেন তিনি।

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৮ উপলক্ষে এ বছর ১৯টি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হচ্ছে।

ফরিপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এরাদুল হক জানান, ডিসি মহোদয়ের যোগদানের ঠিক এক বছরের মাথায় দেশের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক (শিক্ষা পদক)-২০১৭ হিসেবে স্বীকৃতি পান। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য তাকে এই সম্মাননা দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, যোগদানের পর থেকে প্রশাসনকে জনবান্ধব করার লক্ষ্যে নানামুখী কর্মসূচি গ্রহণ করেন। জেলা ই-সেবা কেন্দ্র, ইউডিসি, হেল্পডেস্ক, জয়িতা অঙ্গন, ডিজিটাল হাজিরাসহ নানা ধরনের জনসেবামূলক কর্মসূচি চালু ও সেবার মান উন্নয়নসহ সকল ক্ষেত্রে  গতি সঞ্চয় করেন। ছাত্র-ছাত্রীদের আধুনিক ও নৈতিক শিক্ষায় সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার জন্য ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবকদের সমন্বয়ে নানামুখী কর্মসূচি গ্রহণ করেন। ২৫০টির অধিক স্কুল ও কলেজে মাল্টিমিডিয়া ক্লাস রুম প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অবদান রেখেছেন।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, এসডিজি বাস্তবায়নে সরকার ঘোষিত ভিশন ২০২১ ও ভিশন ২০৪১ সফল করার লক্ষ্যে গুণগত জনসেবা ও জনবান্ধব প্রশাসন গড়ে তুলতে আমরা বধ্য পরিকর।

ফরিদপুর জেলার উন্নয়নের স্বার্থে সততা, স্বচ্ছতা ও আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাবার প্রত্যয় ব্যক্ত করে জেলা প্রশাসক বলেন, ফরিদপুর জেলার ঐতিহ্যকে ধারণ করে বাংলাদেশের প্রথম সারির জেলায় রূপান্তরের চেষ্টা করছি। ফরিদপুর জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে সাথে নিয়ে একটি টিম হিসেবে এ কাজ করে যাচ্ছি।

উম্মে সালমা তানজিয়া রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। স্থানীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে কৃতিত্বের সাথে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সমাপ্ত করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৯৯৮ সালে বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারে সহকারী কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৩ সালের মার্চে উপ-সচিব হিসেবে পদোন্নতি পান।

Leave a Reply