অসহায়দের জন্য স্কুল ছাত্রী ফাতেমা’র ভালোবাসা

মাহবুব পিয়াল,ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ ॥ মা,বাবাসহ পরিবারের নিকটজনদের কাছ থেকে পাওয়া ঈদের সেলামীর টাকা ও এবারের ঈদে নতুন পোশাক না কিনে করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষের কল্যানে নিজের জমানো টাকা ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের হাতে তুলে দিলেন স্কুল ছাত্রী ফাতেমা রহমান রুপন্তি।
রবিবার সকালে ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের হাতে নিজের জমানো ৪ হাজার টাকা তুলে দেন ফরিদপুর শহরের আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী ফাতেমা রহমান রুপন্তি। এসময় উপস্থিত ছিলেন তার মা নাসরিন আক্তার, ছোট বোন আয়শা রহমান,ছোট ভাই রাফি রহমান। স্কুল ছাত্রী ফাতেমা রহমান রুপন্তির অসহায় মানুষের প্রতি ভালোবাসার এই নির্দশন কে প্রশংসা করে জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেন, ভালো লেখাপড়া করে ,ভালো মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তোল, তাহলে দেশ ও মানুষের জন্য আরো কল্যানকর কাজ করতে পারবে। আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জয়নাল আবেদীন বলেন, আমার স্কুলের শিক্ষার্থীর এমন একটি মহৎ উদ্যোগে আমাদের সকলকে অনুপ্রানীত করেছে। আমরাও চাই স্কুল জীবন থেকেই ফাতেমা রহমান রুপন্তির মতো সকল শিক্ষাথীর্র মধ্যে মানবিকতা তৈরী হোক ।
ফাতেমা রহমান রুপন্তির বাসা ফরিদপুর শহরের টেপাখোলায় ,তার পিতা আব্দুর রহমান ঢাকায় একটি বে সরকারী প্রতিষ্টানে চাকুরী করেন। রুপন্তি টেলিভিশন সংবাদে দেখছেন করোনার কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষ গু খেয়ে না খেয়ে অনেক কষ্টে জীবনযাপন করছে । খবর গুলো দেখে সে চিন্তা করলো এবার ঈদে আমি নতুন পোশাক না নিয়ে ,সেই টাকা গরীব দুঃখি মানুষের মাঝে খাবার কিনে দিব। তাই বাবার কাছ থেকে পোশাক ক্রয়ের টাকা নিয়ে নিলেন এবং ঈদে আপন জনদের নিকট থেকে যে সেলামী পেয়েছেন সব মিলে তার হাতে ৪ হাজার টাকা জমা হয়েছে। সেই টাকা জেলা প্রশাসকের হাতে দিতে পেরে আনন্দের হাসি হাসলেন স্কুল ছাত্রী ফাতেমা রহমান রুপন্তি।

Leave a Reply