এই ওষুধ খেলে শরীরে শক্তি বাড়বে’ বলে মেয়ের মুখে বিষ তুলে দিলেন মা ॥ ঘটনাস্থল নগরকান্দা-

ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ ॥ এই ওষুধ খেলে শরীরে শক্তি বাড়বে’ একথা বলে নিজের গর্ভজাত ৮ বছরের মেয়ের মুখে বিষ তুলে দিয়ে নিজেও বিষ পান এক মা। বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের ভবুকদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মুমূর্ষ অবস্থায় ওই মা ও মেয়েকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ (ফমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আশঙ্কামুক্ত না হওয়ায় তাদের ২৪ ঘন্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিসক।
ফমেক হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ভাগ্য বিড়ম্বনার শিকার ওই মায়ের নাম মৌসুমী আজাদ (২৬)। তিনি ওই গ্রামের জনৈক লিটন মোল্যার স্ত্রী। তাদের মেয়ের নাম ফায়জা ইসলাম। শিশুটি স্থানীয় একটি কেজি স্কুলে ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী।
বিষপানকারী ওই মা ও শিশুর স্বজনেরা জানান, মৌসুমী আজাদের স্বামী লিটন মোল্যা একজন ব্যবসায়ী। তিনি ভবুকদিয়া বাসস্ট্যান্ডে হার্ডওয়ারের দোকান করেন। সাংসারিক বিষয় নিয়ে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মাঝে মনোমালিন্য চলছিল।
তারা জানান, এই ওষুধ শরীরে শক্তি বাড়বে’ একথা বলে ফায়জাকে বিষ পান করতে দেয় তার মা মৌসুমী। তিনি নিজেও ওই বিষ পান করেন। এরপর তারা দু’জন অসুস্থ্য হয়ে পড়লে স্বজনেরা তাদেরকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। অসুস্থ্য শিশু ফায়জা এসময় নির্বাক ছিলো। স্বজনেরা তার সাথে কথা বলতে চেষ্টা করলেও সে কোন প্রত্যুত্তর করছিলো না।
লিটন মোল্যার ভাই টিটো মোল্যা জানান, শিশু ফায়জা মুটামুটি সুস্থ্য রয়েছে। ওর মায়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সংসারে টুকিটাকি ঝগড়া হতে পারে। আর সেই কারনে ভাবী এমন কাজ করতে পারে আমি ভাবতে পারিনি।
এই প্রতিনিধির সাথে কথা হয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশু ফায়জার সঙ্গে। শিশুটি জানায় তার মা তাকে বলেছে তোমার বাবা বাজার থেকে এই ওষুধটি পাঠিয়েছে। এটা খেলে অনেক শক্তি হয়। এর পর মা ও খেয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শিশু ওয়ার্ডের ইন্টার্নী চিকিৎসক জানান, কতোটুকু পরিমাণ বিষ ওই শিশু ও তার মা সেবন করেছেন তা বলতে পারছেন না স্বজনেরা। শিশু ফায়জাকে আমরা ২৪ ঘন্টার পর্যবেক্ষণে রেখেছি। আর তার মাকে মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

Leave a Reply