‘এই মুহূর্তে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ দেওয়া যাবে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক : বড় বিদ্যুৎ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করতে না পারা এবং বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইনে ঘাটতি থাকায় এই মুহূর্তে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ দেওয়া যাবে না। সোমবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ এই মুহূর্তে আমরা দিতে পারব না। এটা হতে হতে আমাদের আরো ৩-৪ বছর লেগে যাবে।’ তবে আগামী ৪/৫ দিনের মধ্যে বিদ্যুৎ পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি। যদিও সঞ্চালন লাইন মেরামত করতে ৬ থেকে ৭ মাস লাগবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।
সমাধান হিসেবে নসরুল হামিদ বলেন, ‘আমাদের উত্তরাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলে যে কয়টা পাওয়ার প্ল্যান্ট আছে সেগুলো আমরা ৪-৫ দিনের মধ্যে শুরু করে দেব। এর মাধ্যমে কাভার করা হবে।’ আগামী রমজান মাসে বিদ্যুতের সংকট হবে কি না, জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বলতে পারি একটা ভালো পরিস্থিতির দিকে যাবে। সংকট তো থাকবেই, এখনো আছে।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এখন আমরা বলব না যে খুব ভালো অবস্থায় আছি। বিদ্যুতের ক্ষেত্রে ভালো অবস্থায় যেতে আরো তিনটি বছর লাগবে। ট্রান্সমিশনে (সঞ্চালন লাইন) এখনো ঘাটতি রয়ে গেছে, কাজ চলছে। চীন সরকারের কাছ থেকে আমাদের যে অর্থ পাওয়ার কথা সেগুলো প্রক্রিয়াধীন আছে। সব মিলিয়ে একটা ভালো জায়গায় যেতে ৩/৪ বছর লেগে যাবে।’ তিনি বলেন, ‘বৃহৎ প্র্রকল্পগুলো এখনো আসেনি। সেগুলো আসতে সময় লাগছে। আমি মনে করি দেশবাসী যারা আছেন, যারা গ্রাহক আছেন, সকলে আমাদের অবস্থাটা বুঝতে পারবেন। আমাদের সঙ্গে থাকবেন। ইনশাআল্লাহ, আমরা একটা ভালো অবস্থার দিকে যাব।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আশুগঞ্জে বিদ্যুৎ সঞ্চালন আইন ভেঙে পড়ায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও উত্তরাঞ্চলে বিদ্যুৎ সংকট দেখা দিয়েছে।’

Leave a Reply