• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০১:১৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা জুন মাসের শেষের দিকে হতে পারে আগামীতে ক্ষমতায় আসলে ফরিদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় করে দেব- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সদরপুরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার গ্রহন করলেন ১১৪ জন শিক্ষার্থী এবার শহরের সৌন্দর্য বাড়াতে ৫০টি জবা ফুল গাছ রোপন করলেন সেই বৃক্ষ প্রেমিক স্কুল শিক্ষক নুরুল ইসলাম কুমার নদের দূষণ-দখল বন্ধে নৌ-শোভাযাত্রা ফরিদপুরে হত দরিদ্র ১৭৫০টি পরিবারে মাঝে কোরবানীর মাংস বিতরন ফরিদপুরে সাইবার সহিংসতা রোধে ‘ফ্রেন্ড রেইজার’ ডিবেট মরহুম শেখ ছৈজদ্দিন আল চিস্তির ওফাৎ দিবসে  দোয়া ও মিলাদ মাহফিল ফরিদপুরের কুমার নদ রক্ষায় জেলা প্রশাসনের অভিযান শুরু ফরিদপুরে পিকেএসএফ ও বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় এসডিসি’তে রেইজ প্রকল্পের ‘উদ্যোক্তা উন্নয়ন’ প্রশিক্ষণ শুরু

নারী ক্ষমতায়ন ও সমাজ সেবায়  ‘আলোকিত নারী সম্মাননা ’২০২৩ পেলেন ফরিদপুরের বিলকিস ইসলাম

ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ / ১৭৮ Time View
Update : রবিবার, ১২ মার্চ, ২০২৩

ফরিদপুরের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক বিলকিস ইসলাম নারী ক্ষমতায়ন ও সমাজ সেবায়  অসামান্য অবদানের জন্য আলোকিত নারী সম্মাননা-২০২৩ এ ভূষিত হয়েছেন। গত  শুক্রবার (১০ই মার্চ) বিকেলে ঢাকায়  শেরে বাংলা এ.কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদ এবং ইন্ডিয়া বাংলাদেশ কালচারাল কাউন্সিল এর যৌথ উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি মিলনায়তন, আইডিইবি ভবনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০২৩ উদযাপন উপলক্ষে ডিজিটাল বিশ্ব হোক সবার: নারীর অধিকার সুরক্ষায় ও সহিংসতা মোকাবেলায় চাই মানবিক দৃষ্টিভঙ্গিসম্পন্ন বৈষম্যহীন সৃজনশীল প্রযুক্তি প্রতিপাদ্য নিয়ে ‘‘নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বের রোল মডেল বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভা, আলোকিত নারী সংবর্ধনা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।  সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা সাবেক তথ্য সচিব ও বিটিআরসি’র সাবেক চেয়ারম্যান, শেরে বাংলা’র দৌহিত্র সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ এর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের চেয়ারম্যান মো মঞ্জুর হোসেন ঈসার সঞ্চালনায় উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অবঃ) এম. হারুন-অর-রশিদ বীর প্রতীক, সাবেক সেনাপ্রধান ও সাবেক রাষ্ট্রদূত। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিচারপতি এস.এম. মুজিবুর রহমান, প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বেগম মেহের আফরোজ চুমকী এম.পি, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আরমা দত্ত এম.পি, ঢাকা মেট্রোপলিটন উপ-পুলিশ কমিশনার সালমা সৈয়দ পলি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন শেরে-বাংলা এ কে ফজলুল হক গবেষণা পরিষদের মহাসচিব মোঃ আর. কে. রিপন। একই মঞ্চে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয় তারা মুক্তিযুদ্ধে ও নারী আন্দোলনে- আইভী রহমান (মরনোত্তর),সাবেক সভানেত্রী বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগ। কথাসাহিত্য- সেলিনা হোসেন, বিশিষ্ট কথা-সাহিত্যিক, লেখক ও ঔপন্যাসিক, সভাপতি, বাংলা একাডেমি। ফোক সংগীতে-মমতাজ বেগম এম.পি, সম্পাদক ও নারী অধিকার বাস্তবায়নে- তাসমিমা হোসেন (সাবেক এম.পি), সম্পাদক, দৈনিক ইত্তেফাক ও মাসিক অনন্যা, নারী সাংবাদিকতায়-ফরিদা ইয়াসমিন, সভাপতি, জাতীয় প্রেসক্লাব, নারী উদ্যোক্তা ও সমাজ সেবায়-কণা রেজা, পরিচালক,চ্যানেল আই ও পান সুপারী, কর্মসংস্থান ও অর্থনীতি উন্নয়নে- আফরোজা বেগম, প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক,বসুন্ধরা গ্রুপ, ঢাকা,  ব্যবসা বাণিজ্য ও সমাজসেবায়- ড. মনোয়ারা হাকিম আলী, প্রেসিডেন্ট, চট্টগ্রাম ওমেন্স অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, উচ্চ শিক্ষা বিস্তারে- প্রফেসর ড. হামিদা খানম, অধ্যাপক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, কবি ও লেখক হিসেবে-  ফিরোজা পারভীন (পারভীন রেজা), বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক,  আইন ও সমাজসেবায়- এ্যাড. নাহিদ সুলতানা যুথী, এ্যাডভোকেট, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট, সেরা চলচ্চিত্র নির্মাতা  হিসেবে- চয়নিকা চৌধুরী, বিশিষ্ট চলচ্চিত্র নির্মাতা ও পরিচালক চলচ্চিত্র অভিনয়ে- চিত্রনায়িকা অঞ্জনা সুলতানা,  শিক্ষা বিস্তারে ও সমাজ সেবায়- লুৎফুন নেসা ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান,  আলিফ গ্রুপ অব কোম্পানীজ। সংগ্রামী নারী হিসেবে যারা পুরস্কৃত হলেন, জাগ্রত সেবা কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডেন্ট লায়ন নাজনীন সুলতানা লুনা, ঢাকা মেট্রোপলিটন উপ-পুলিশ কমিশনার সালমা সৈয়দ পলি, নড়াইল জেলা পুলিশ সুপার মোসাঃ সাদিয়া খাতুন, এনডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য নাজমুন নাহার মিনতী এবং দেশবরেণ্য চলচ্চিত্র শিল্পী পরি মনি।

বিলকিস ইসলাম বলেন, এ সম্মাননা আমাকে আনন্দিত করেছে, এ সম্মাননা আমি উৎসর্গ করছি আমার মা রওশন আরা বেগম ও আমার শ্বাশুড়ি বেগম জিন্নাত আরা কে, তারা স্বনামধন্য স্বাবলম্বী নারী ক্ষমতায়নের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। ১৯৯১ সালে যখন আমি ফরিদপুর পৌরসভার নারী কমিশনার হিসেবে নির্বাচিত হই তখন থেকেই আমার একমাত্র লক্ষ্য ছিল আমার এলাকার মেয়ের স্বাবলম্বী করা। রক্ষণশীল ফরিদপুর শহরে আমি প্রথম গৃহবধুদের দিয়ে শীতলপাটির বুনন শুরু করি, সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার কাশীপুর গ্রাম থেকে মর্জিনা বেগমকে আমার বাসায় এনে আমার নির্বাচিত এলাকার মেয়েদের প্রশিক্ষণ দেই। মুরতা বেতের সেই শীতল পাটি বুনে বহু নারী স্বাবলম্বী হয়েছেন।  ২০০১ সালে যখন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জাতীয় মহিলা সংস্থা ফরিদপুর অঞ্চলের চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব আমাকে দেয়া হয় তখন সেলাই এর সাথে সাথে মেয়েদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রথম ফরিদপুরে আমি প্রবর্তন করি। আমি বিশ্বাস করি, সব নারীদের একটি বিশেষ গুণ আছে, সেটিতে বিকশিত করে আমরা সমাজ কল্যাণ ও মানবকল্যাণে ব্রতী হতে পারবো। উল্লেখ্য বিলকিস ইসলাম ফরিদপুর জাতীয়তাবাদী মহিলাদলের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, ফরিদপুর মানবাধিকার কমিশনের সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সাবেক কারাপরিদর্শক। তার স্বামী আশরাফুল ইসলাম সাবেক জেলা জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এবং একমাত্র ছেলে দেশবরেণ্য আবৃত্তিশিল্পী সামিউল ইসলাম পোলাক।

বর্তমানে তিনি ছাদকৃষি ও একটি বইয়ের সম্পাদনার কাজে ব্যস্ত আছেন।


More News Of This Category