ফরিদপুরে নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১৪২৪ বর্ষবরণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
জঙ্গী, মৌলবাদমুক্ত ও অসাম্প্রদায়িক মঙ্গলময় সমাজ বির্নিমানের প্রত্যয়ে ফরিদপুরবাসী নানা আয়োজনের মধ্যে বরণ করে নিল বাংলা ১৪২৪ সালকে। বাংলা নববর্ষের প্রথম দিনকে ফরিদপুরের বিভিন্ন সামাজিক, স্বেচ্ছাসেবী ও সংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান স্বাগত জানিয়ে বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করছে ।
‘এসো হে বৈশাখ এসো, এসো ..’ অবিরাম সুরের মুর্চ্ছনা, ১বৈশাখ শুক্রবার শোভাযাত্রা, রঙে রঙে সিক্ত হওয়া, নাচ গান, হৈ হুলে¬¬¬াড়, তরমুজ বাঙ্গি বাতাশাসহ আবহমানকালের বিভিন্ন খাবার এবং পান্তা-ইলিশ সবমিলিয়ে সারাদিন উৎসব মুখর বর্ণাঢ্য, বর্ণিল পরিবেশে ফরিদপুরে উদ্যাপিত হয়েছে নববর্ষ।
ভোর সাড়ে ৬টার দিকে ফরিদপুর সাহিত্য ও সংস্কৃতি উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে বর্ষ বরণের মাধ্যমে দিনের সকল আয়োজনের সূচনা ঘটে। এখানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকার পল্লি¬ উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া, পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা প্রমুখ। সংস্থার সভাপতি আবুল ফয়েজের সভাপতিত্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চৌধরী।
সকাল সাড়ে ৮টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে হতে বের হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা । এছাড়া ফরিদপুর ব্যাপ্টিস্ট চার্চ স্কুল, প্রথম আলো বন্ধুসভা, সানরাইজ কিন্ডারগার্টেন, ফিটনেস ক্লাবসহ বিভিন্ন শিক্ষা, সামাজিক ও সংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান শোভাযাত্রা বের করে। গ্রিণফোর্ড ক্যাডেট স্কুল সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পান্তা-ইলিশের আয়োজন করে।
সকাল ৯টার দিকে শহরের অম্বিকা ময়দানে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ শহীদ মিনারের পাদদেশে বর্ষ বরণ উপলক্ষ্যে সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অফিসার্স ক্লাব, ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় সংস্কৃতি ও ত্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। বিকেলে রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে লাঠি খেলা ও কাবাডি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।
বিকাল ৩টা হতে সাহিত্য ও সংস্কৃতি উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে স্বাধীনতা চত্ত্বরে ৮ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলা শুরু হয়। মেলাসহ বিভিন্ন সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বাধ ভাঙ্গা জোয়ারের মত যোগ দেয় সর্বস্থরের মানুষ। বিকেল থেকেই ফরিদপুর শহর জনতার শহরে রূপান্তরিত হয়। অনিবার্যতা হিসেবে প্রধান প্রধান সড়কে সৃষ্টি হয় যানজটের।
রাতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের শহতলীর বদরপুরস্থ বাসভবন আফসানা মঞ্জিলে সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন এই সময়য়ের জনপ্রিয় শিল্পী মমতাজ। বিভিন্ন বয়সের সর্বস্তরের শত শত মানুষ গভীর রাত পর্যন্ত এ অনুষ্ঠান উপভোগ করে।

Leave a Reply