• সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৮:১৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা জুন মাসের শেষের দিকে হতে পারে আগামীতে ক্ষমতায় আসলে ফরিদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় করে দেব- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সদরপুরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার গ্রহন করলেন ১১৪ জন শিক্ষার্থী এবার শহরের সৌন্দর্য বাড়াতে ৫০টি জবা ফুল গাছ রোপন করলেন সেই বৃক্ষ প্রেমিক স্কুল শিক্ষক নুরুল ইসলাম কুমার নদের দূষণ-দখল বন্ধে নৌ-শোভাযাত্রা ফরিদপুরে হত দরিদ্র ১৭৫০টি পরিবারে মাঝে কোরবানীর মাংস বিতরন ফরিদপুরে সাইবার সহিংসতা রোধে ‘ফ্রেন্ড রেইজার’ ডিবেট মরহুম শেখ ছৈজদ্দিন আল চিস্তির ওফাৎ দিবসে  দোয়া ও মিলাদ মাহফিল ফরিদপুরের কুমার নদ রক্ষায় জেলা প্রশাসনের অভিযান শুরু ফরিদপুরে পিকেএসএফ ও বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় এসডিসি’তে রেইজ প্রকল্পের ‘উদ্যোক্তা উন্নয়ন’ প্রশিক্ষণ শুরু

ফরিদপুরে ২১দিনব্যাপী জসীম পল্লী মেলা শুরু

Reporter Name / ১২৯ Time View
Update : রবিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২৩

পল্লীকবি জসীম উদ্দীনের ১২০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ফরিদপুরে শুরু হয়েছে ২১দিনব্যাপী জসীম পল্লীমেলা-২০২৩

শনিবার (২১ জানুয়ারি) বিকালে জেলা সদরের অম্বিকাপুরে কবির নিজ বাড়ির সামনে কুমার নদের পাড়ে এ মেলার উদ্বোধন করা হয়।

জেলা প্রশাসন ও জসীম ফাউন্ডেশন এ মেলা আয়োজনের উদ্যোগ নেন।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, কবির জামাতা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্য তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, আপনারা যদি কবি জসীমউদ্দিনকে জানতে চান তবে তাঁর বই পড়তে হবে। তার কৃতকর্মগুলো সম্পর্কে জানতে চেষ্টা করতে হবে।

তিনি নতুন প্রজন্মকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “প্রচারের অভাবে পল্লী কবি জসীমউদ্দিন সম্পর্কে নতুন প্রজন্ম ভুলতে বসেছে। নতুন প্রজন্ম আজকাল বই পড়া ভুলে যাচ্ছে। তাই, নতুন প্রজন্মকে বই পড়ার প্রতি উদ্বুদ্ধ করতে হবে। জসীমউদ্দিনের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি করতে হবে। তা না হলে একসময় নতুন প্রজন্ম জসীমউদ্দিনকে ভুলে যাবে।”

এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান,বিশিষ্ট শিল্পপতি একে আজাদ,  জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শামীম হক, সাধারণ সম্পাদক শাহ্ মো. ইশতিয়াক আরিফ, ফরিদপুর পৌর মেয়র অমিতাভ বোস, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা প্রমূখ।

এছাড়া বরেণ্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কবি পুত্র ড. জামাল আনোয়ার, খুরশিদ আনোয়ার, কবি কন্যা আসমা জসীম উদ্দীন তৌফিক।

জসীম পল্লীমেলা সম্পর্কে ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোসা. তাসলিমা আলী জানান, এ মেলায় বিভিন্ন স্টলে লোকজ বিভিন্ন চারু ও কারুপণ্যের বিপণনের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলায় ১৫০-২০০টি স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতিদিন বিকালে মেলার মাঠ প্রাঙ্গণে জসীম মঞ্চে গান, নাচ, নাটকসহ বিভিন্ন লোকজ সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকছে। এতে ফরিদপুরের এবং জেলার বাইরের সংস্কৃতিক দলগুলো অংশগ্রহণ করছে।

তিনি আরও বলেন, মেলায় রয়েছে হস্ত, মৃৎ, বাঁশ ও বেত শিল্পসহ গ্রামীণ মানুষের ব্যবহৃত নিত্যদিনের জিনিসপত্র। এছাড়াও শিশু-কিশোরদের বিনোদনের জন্য রয়েছে সার্কাস, নাগরদোলাসহ বিভিন্ন রকমের রাইডস্।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৮ সাল থেকে জসীম মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। ওই বছর ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদের উদ্যোগে ১ জানুয়ারি পল্লীকবির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এ মেলার আয়োজন করা হয়। মেলার ব্যাপ্তিকাল প্রথমে তিন দিন ছিল। পরে ৭, ১৫ ও এক মাসব্যাপী এ মেলার আয়োজন হয়েছে। ১৯৯১ সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিন আহমেদ এ মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এলে মেলার গুরুত্ব বেড়ে যায়। পরে জেলা প্রশাসন ও জসীম ফাউন্ডেশন এ মেলা আয়োজন শুরু করে। তারাই ধারাবাহিকতায় শনিবার (২১ জানুয়ারি) বিকালেও এ মেলার উদ্বোধন করা হয়।


More News Of This Category