ফরিদপুর পৌরসভার ২’শ ৬৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকার বাজেট ঘোষনা করলেন পৌর মেয়র শেখ মাহাতাব আলী মেথু॥

মাহবুব পিয়াল,ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ ॥ ফরিদপুর পৌরসভার ২৬৪ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করাহয়েছে।সোমবার বেলা১১টার দিকে পৌরসভার সস্মেলন কক্ষে সাংবাদিকসহ উপস্থিত সুধীমহলের উপস্থিতিতে এ বাজেট ঘোষনা করেন পৌর মেয়র শেখ মাহাতাব আলী মেথু।

বাজেটে আয় ও ব্যায় সমান দেখানো হয়েছে।আয় দেখানো হয়েছে ১৬৪কোটি ৪৩লাখ ১৮হাজার ৮১৬টাকা ৮৬পয়সা।আয়ের উৎস হিসেবে দেখানো হয়েছে রাজস্ব হিসাব থেকে ৪১কোটি ৭০লাখ ৭৪হাজার ৫১২টাকা ৯৫পয়সা।উন্নয়ন খাত থেকে প্রাপ্ত আয় দেখানো হয়েছে ১৩কোটি ২৩লাখ ৮৩হাজার৫৩৪টাকা ৯১পয়সা।মূলধন হিসেব থেকে আয় দেখানো হয়েছে ১০কোটি ৫৫হাজার৭৬৯টাকা এবংপ্রকল্প খাত থেকে দেখানো হয়েছে ১৯৯ কোটি ৪৮লাখ ৫হাজার টাকা। গত ২০১৮-২০১৯ সালের বাজেট ছিল ১১৩ কোটি টাকা। গতবারের  থেকে এবারের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট দ্বিগুনেরবেশী পরিমান অর্থের বাজেট বলে সাংবাদিকদের জানান মেয়র শেখ মাহ্তাব আলী মেথু। আর এই বিপুল অংকের বাজেট বাস্তবায়নে ফরিদপুর পৌরসভার সকল পৌরবাসিরকাছে তিনি সহযোগিতা কামনা করেন।

বাচজট ঘোষনা শেষে প্রশ্ন উত্তর পর্বে মেয়র বলেন, নানা সীমাবদ্ধতার মধ্যে কাজ করতে হয়। এসবের মধ্য থেকেও ফরিদপুর পৌরসভা এগিয়ে গেছে। দেশের পৌরসভা গুলোর রোল মডেল ফরিদপুর পৌরসভা। তিনি বলেন, যানজট জটিলতাসহ কিছু সমস্যা রয়েছে যা সমাধানেও ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। দ্রুত সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

বাজেট ঘোষণা সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার কাউন্সিলর আনিসুর রহমান,  খন্দকার শামসুল আরেফীন , মাহফুজুর রহমান মামুন,মো ইদ্রিস খান, তৃষ্ণা রানী সাহা, ফরিদপুরের বিশিষ্ট্য শিক্ষাবিদ মোহাম্মদ শাহজাহান, নারী নেত্রী শিপ্রা গ্বোসামী,পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহজাহান মিয়া,  নির্বাহী প্রকৌশলী শামসুল আলম, সচিব মো. তানজিলুর রহমান, হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল, হিসাব রক্ষক মো. ফজলুল করিম আলালসহ সাংবাদিকবৃন্দ।

প্রসঙ্গত মেয়র শেখমাহাতাবআলীকাউন্সিলর থাকাকালিন সময়ে ২০০২ সালে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পান। এরপর দীর্ঘ দিন ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন। ভারপ্রাপ্ত মেয়র থাকাকালিন সময়ে ২০১১ সালে তিনি বিপুল ভোটে নির্বাচিত মেয়র হন।

Leave a Reply