বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে ফরিদপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

ভয়েস অব ফরিদপুর রির্পোট ॥
‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের কোন জায়গা নেই। বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামে পাওয়া তাঁরই রক্ত ভেজা এ মাটি থেকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িকতার বীজ চিরতরের জন্য উচ্ছেদ আমরা করবোই, করবো।’এই প্রত্যয় নিয়ে ১৫আগষ্ট মঙ্গলবার ফরিদপুরে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদা ও বিনম্র শ্রদ্ধার সাথে পালিত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২ তম শাহাদৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস।
সকাল ৮টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে একটি শোক র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি অম্বিকা ময়দানে গিয়ে শেষ হয়। পরে সকাল সাড়ে ৮টায় অম্বিকা ময়দানে নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেন স্থানীয় সরকার পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এর পক্ষে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক বেগম উম্মে সালমা তানজিয়া, পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র সাহা, ফরিদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার মোহতেশাম হোসেন বাবর । এরপরজেলা প্রশাসন,পুলিশ প্রশাসন,জেলা পরিষদ,পৌরসভা,জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,সরকারি, বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
দুপুরে ডিক্রিরচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে সিএন্ডবি ঘাট এলাকায় মিলাদ মাহফিল ও গণভোজের আয়োজন করা হয়। বাদ জহুর বিভিন্ন মসজিদে বিশেষ মোনাজাত ও দোয়ার আযোজন করা হয়। এরপর জনতা ব্যাংকের মোড়ে জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে খাবার বিতরণ করা হয়। বিকেল ৪টায়জেলা প্রশাসন ওজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নারীদের উদ্যোগে আলোচনা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এছাড়া বিকেলে চক বাজার বণিক সমিতির উদ্যোগে নিজস্ব কার্যালয়ে মিলাদ ও দোয়া এবং একই সময় চকবাজার নারায়ণ মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।বিকেল ৫টার দিকে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে যুবলীগের উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। জেলা পরিষদ কার্যালয় চত্ত্বরে বঙ্গবন্ধুর আলোকচিত্রের প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় কবি জসীম উদ্দীন হলে ‘স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’-এর জীবন ও কর্মের উপর এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে সকাল সাড়ে সাতটা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিনামূল্যে অস্ত্রপচার করাসহ চিকিৎসা সেবা প্রদান ও ওষুধ বিতরণ করা হয়। ফরিদপুর মুসলিম মিশন কলেজ ও দাখিল মাদ্রসার উদ্যোগে বেলা ১১টায় কলেজ মিলনায়তনে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।ফরিদপুর মুসলিম মিশন কলেজ অধ্যক্ষ অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুর মুসলিম মিশন সম্পাদক অধ্যাপক এম এ সামাদ। আলোচনা সভা শেষে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আতœজীবনী গ্রন্থের উপর আন্তঃ কলেজ ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে অনুষ্ঠিত কুইজ প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করা হয়। শহরের ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভাদোয়া ও মিলাদ এবং গনভোজের আয়োজন করা হয়। জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারন সম্পাদক সায়েদুন্নাহার পান্নারনেতৃত্বে গনভোজে স্থানীয় আওয়ামীলীগ যুবলীগ,ছাত্রলীগ সহ অঙ্গ সংগঠনেরনেতা কর্মীরা অংশনেন ।দুপুরে কমলাপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে আলোচনা দোয়া ও ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে খাবার পরিবেশন করা হয়। কমলাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোসাম্মাদ নাছিমা আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের শিক্ষক,ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও ছাত্র-ছাত্রীগন অংশ গ্রহন করেন।

Leave a Reply