ভালো মানুষ হওয়ার ক্ষেত্রে সাহিত্য অনেক বেশি প্রয়োজন- ডিসি অতুল সরকার’

মাহবুব পিয়াল,ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ ।। ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেছেন, পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে বিবেচিত হতে হলে অবশ্যই সাহিত্য পড়তে হবে। বাংলা ভাষায় পড়ালেখা করার সময় বাংলা ভাষায় যারা বিশিষ্ট ব্যক্তি-সাহিত্যিক আছেন তাদের লেখা পড়তে হবে। তিনি বুধবার বঙ্গবন্ধু-বিএনএফ শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। তিনি বলেন,  অভিভাবকরা মনে করেন পাঠ্য বইয়ের বাইরে সাহিত্য পড়লে সময় নষ্ট হয়, প্রকৃত পক্ষে তা নয়। বরং সাহিত্য প্রকৃত মানুষ হয়ে উঠতে সহায়তা করে।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন, কিছু কিছু অভিভাবক মনে করেন সন্তানদের শুধু ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার বানাবো। তাদের সাহিত্য সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অগ্রসর হওয়াতে অভিভাবক ভূমিকা রাখেন না। এ ধরনের চিন্তা চেতনা আসলে সন্তানকে একটা কাঠের পুতুল বানানোর মত।  এসবের কারণে সন্তানরা প্রকৃত মানুষ হয়ে উঠতে পারে না। ফলশ্রুতিতে নানা ধরনের সামাজিক অস্থিরতা তৈরি হয়।

অতুল সরকার বলেন, সাংস্কৃতিক সংস্কার না হওয়া পর্যন্ত  নতুন করে ভালো কিছু তৈরি হবে না।  আগের লেখকদের গল্প কবিতা এবং একালের লেখকদের কবিতা গল্পের মধ্যে ব্যাপক পার্থক্য রয়েছে। দর্শন থেকে শুরু করে বাক্য গঠন পর্যন্ত ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। প্রকৃতপক্ষে প্রত্যেকটি সাহিত্য কর্মে সুস্পষ্ট ম্যাসেজ থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন, অপসংস্কৃতি মানুষকে প্রকৃত মানুষ হতে সহায়তা করে না। সংগীত কখনো বিনোদনের জন্য হতে পারে, কখনো আনন্দের জন্য হতে পারে আবার কখনো প্রার্থনার জন্য হতে পারে।  একজন মানুষের ভালো মানুষ হওয়ার ক্ষেত্রে সাহিত্য অনেক বেশি প্রয়োজন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান শুরু হয়। এতে বক্তব্য প্রদান করেন বিএফএফ এর নির্বাহী পরিচালক আ ন ম ফজলুল হাদী সাব্বির, রাসিনের নির্বাহী পরিচালক আসমা আক্তার মুক্তা, পথকলী সংস্থার নির্বাহী পরিচালক বেলায়েত হোসেন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পুরওর অয়েল ফেয়ার অর্গানাইজেশনের নির্বাহী পরিচালক হাফিজুর রহমান। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীসহ সামাজিক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু বিএনএফ শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩৮ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে দ্বিতীয় কিস্তির ৩ হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়। এর আগে শিক্ষাবৃত্তির প্রথম কিস্তির ৩ হাজার টাকা গত ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীতে প্রদান করা হয়।

Leave a Reply