ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবিতে নিহত দু’জনের মৃতদেহ ফরিদপুরের বাড়িতে॥voice of faridpur

ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ ॥ ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে অবৈধভাবে ইতালি যাওয়ার পথে সাগরের পানিতে ডুবে নিহত দুই যুবকের মৃতদেহ ফরিদপুরে এসে পৌছেছে। রবিবার তাদের মৃতদেহ ফরিদপুরে এসে পৌছলে সেখানে হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। নিহত এই দুই যুবক হলো ফরিদপুরের সদর উপজেলার ডোমরাকান্দি গ্রামের বেলাল মোল্যার ছেলে সায়েম মোল্যা (১৭) ও সালথার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের মাঝারদিয়া গ্রামের আব্দুল আলিমের পুত্র সেলিম মিয়া (৩০)।
নিহতদের মধ্যে ফরিদপুরের এই দু’জন ছাড়াও সালথা উপজেলার মাঝারদিয়া গ্রামের মফিজুর রহমানের ছেলে সানি (২১) নামে আরেক যুবক রয়েছেন যার মৃত্যুও একই সাথে হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে সানির লাশ এখনো ফরিদপুরে এসে পৌছেনি।
নিহতদের পারিবারীক সূত্রে জানা যায়, ৮০ হাজার টাকা বেতনে কাজ দেয়ার প্রলোভনে তাদেরকে ইতালি নেয়ার কথা ছিলো। গত ১০ মে তারা বাংলাদেশ হতে প্রথমে লিবিয়া যায়। এরপর লিবিয়া হতে প্রথমে একটি ট্রলারযোগে ও পরে একটি ছোট নৌকায় করে ইতালি যাচ্ছিলো তারা। সাত লাখ টাকা চুক্তিতে ফরিদপুরের ডোমরাকান্দির ইতালি প্রবাসী জনৈক মফিজুর রহমানের মাধ্যমে তারা এই চাকরীর সন্ধান পান বলে জানান।
নিহত সায়েমের বোন সুমাইয়া (২১) জানান, গত ৩ জুন তার ভাইয়ের সাথে শেষ কথা হয়। একটি নৌকায় করে তারা সাগর পাড়ি দিয়ে ইতালি রওনা হয়েছিলো।
‘আমাদের নৌকা ফুটো করে দিয়েছে। এটিই হয়তো শেষ কথা। আমাদের দেখতে মন চাইলে ছবি-টবি দেখো।’ সাগরের বুকে ফুটো সেই নৌকা থেকে মোবাইলে একথাই জানিয়েছিলো সায়েম। বলেই কান্নায় ভেঙে পরেন তার বোন। এটিই ছিলো শেষ কথা। এরপর থেকে আর যোগাযোগ হয়নি সায়েমের সাথে। পরে বিদেশে থাকা অন্যদের নিকট থেকে ভাইয়ের মৃত্যুর সংবাদ পান তারা।

Leave a Reply