রাফসানজানির ইন্তেকালে ইরানে তিনদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও নীতি নির্ধারণী পরিষদের প্রধান আয়াতুল্লাহ আলী আকবর হাশেমি রাফসানজানির ইন্তেকালে তিনদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। এর অংশ হিসেবে মঙ্গলবার ইরানের সরকারি অফিস-আদালত, স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য সরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে আটটায় তেহরান বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে তাঁর নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। এতে উপস্থিত থাকবেন ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী। পরে আয়াতুল্লাহ রাফসানজানির মরদেহকে ইমাম খোমেনী (র) এর মাযার প্রাঙ্গনে দাফন করা হবে। সর্বোচ্চ নেতার পক্ষ থেকে বুধবার সকালে মরহুম রাফসানজানির জন্য শোকানুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে।
আয়াতুল্লাহ রাফসানজানির ইন্তেকালে শোক জানিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. আলী লারিজানি, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা, সামরিক বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ বাকেরি এবং সরকারের বিভিন্ন বিভাগের সরকারি কর্মকর্তারা। এছাড়া, তুরস্কের সাবেক প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ গুল, ইরাকের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বর্তমান ভাইস প্রেসিডেন্ট নূরি আল-মালিকি, ইউরোপীয় ইউনিয়ন বিষয়ক তুরস্কের মন্ত্রী ওমর সেলিক, ইরানে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি গ্রে লুইস, বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালিদ বিন আহমাদ আলে খলিফা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শোকাবার্তা পাঠিয়েছেন তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রাখমোন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ, কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল-আহমাদ আল-জাবের আস-সাবাহ প্রমুখ।মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের কর্মকর্তারা আয়াতুল্লাহ রাফসানজানিকে ইরানের ইতিহাসে বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব হিসেবে তুলে ধরে তাঁর পরিবার ও স্বজনদের প্রতি শোক এবং সমবেদনা জানিয়েছেন।

সূত্র: পার্সটুডে, প্রেসটিভি।

Leave a Reply