শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ফরিদপুর জেলা আওয়মীলীগ কার্যালয়ে ‘‘বঙ্গবন্ধু কর্নার” স্থাপন আলমগীর কবির ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় সৈয়দ আলী মাতুব্বর ডাঙ্গী একাদশ  চ্যাম্পিয়ন এবার নুরুল স্যার শিউলী ও বকুলের গাছ রোপন করলেন ফরিদপুরে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের  জন্মদিন পালিত ফরিদপুর পৌরসভার কর্মচারী কমলাপুরের মজনু’র ইন্তেকাল কাজী আশরাফ সভাপতি/ সাব্বির সাধারন সম্পাদক – ফরিদপুরে এফএনবির নতুন কমিটি ঘোষনা ফরিদপুরে জিংক ধান উৎপাদন ও বাজারজাতকরনে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার শীর্ষক প্রশিক্ষন ডিক্রিরচর ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা শেখ কামাল স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইন্যাল খেলায় ফয়সাল  স্মৃতি একাদশ  চ্যাম্পিয়ন মধুখালীতে ইউপি নির্বাচনে তিনটি ইউনিয়নেই স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সাংবাদিক কে,এম রুবেল

 ভয়েস অব ফরিদপুর নিউজ :
  • Update Time : শনিবার, ২৩ জুলাই, ২০২২
  • ১৬৪ Time View

দৈনিক সংবাদ ও বৈশাখী টেলিভিশনের ফরিদপুর প্রতিনিধি সাংবাদিক কে এম রুবেল (৪৫) ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) শুক্রবার (২২ জুলাই) রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে ফরিদপুর ডায়বেটিক হাসপাতালে নেয়া হয়। রাত ১২টার দিকে সেখানে তার মৃত্যু হয়। তিনি মা, স্ত্রী, দুই পুত্র রেখে যান। সাংবাদিক রুবেলের পুত্র কাজী লামীম ইসলাম জানান, রাতে খাবার খান তার বাবা। এরপর রাত ১০টার দিকে তিনি বুকে ও হাতেপায়ে ব্যথা অনুভব করলে মায়ের সাথে পরামর্শ করে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে আনেন মোবাইল ফোন করে৷ এরপর বাসা হতে হেটে হেটে বের হয়ে বায়তুল আমান বাজার পর্যন্ত এসে অ্যাম্বুলেন্সে উঠে হাসপাতালে যান। সেখানে কিছুক্ষণ পর মারা যান তিনি।রুবেলের মৃত্যুর সংবাদ পৌছালে সহকর্মী ও পরিচিতদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। শহরের বায়তুল আমান মহল্লার মরহুম কাজী সিরাজুল ইসলামের সন্তান ছিলেন কে এম রুবেল। তার পুরো নাম কাজী মো: রুবেল। দীর্ঘ প্রায় ত্রিশ বছর যাবত তিনি ফরিদপুর জেলা সদর থেকে সাংবাদিকতার সাথে জড়িত। এর আগে তিনি বাংলাবাজার পত্রিকায় সংবাদদাতা হিসেবে কাজ করেছেন। একজন বিনয়ী ও হাস্যোজ্জল সহকর্মী হিসেবে কেএম রুবেল সহকর্মীদের কাছে পরিচিত ছিলেন। তার বড় ছেলে কাজী তামিম ইসলাম ফরিদপুর কৃষি ইন্সটিটিউটে কৃষি ডিপ্লোমার ৫ম বর্ষের ছাত্র। ছোট ছেলে কাজী লামীম ইসলাম ফরিদপুর টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইন্সটিটিউটের নিউ টেনের ছাত্র। তার বৃদ্ধা মা হাসিনা বেগম (৮০) শারিরীকভাবে অসুস্থ।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে তার লাশ ফরিদপুর প্রেসক্লাবে আনা হয়। এখানে সর্বস্তরের মানুষ তার মরদেহে ফুল দিথে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।বাদ জোহর বায়তুল আমান ঈদগাহ মাঠে জানাযা শেষে তাকে বিলমামুদপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102